Search This Blog

Tuesday, February 21, 2017

তৎপুরুষ সমাস

তৎপুরুষ সমাস
যে সমাসে পূর্বপদের শেষের বিভক্তি লোপ পায়, এবং পরপদের অর্থ প্রাধান্য পায়, তাকে তৎপুরুষ সমাস বলে। পূর্বপদের যে বিভক্তি লোপ পায়, সেই বিভক্তি অনুযায়ী তৎপুরুষ সমাসের নামকরণ করা হয়। তবে মাঝে মাঝে পূর্বপদের বিভক্তি লোপ না পেয়ে অবিকৃত থেকে যায়। তখন সেটাকে বলা হয় অলুক তৎপুরুষ। (অলুক মানে লোপ না পাওয়া, অ-লোপ)।
যেমন, দুঃখকে প্রাপ্ত = দুঃখপ্রাপ্ত। এখানে পূর্বপদ দুঃখর সঙ্গে থাকা দ্বিতীয়া বিভক্তি কেলোপ পেয়েছে। আবার পরপদ প্রাপ্তর অর্থই এখানে বেশি গুরুত্বপূর্ণ। দুঃখ প্রাপ্ত হয়েছে বলেই নতুন শব্দের প্রয়োজন হয়েছে, যার জন্য বাক্যাংশটিকে সমাস করে নতুন শব্দ বানানো হয়েছে। অর্থাৎ, এখানে পূর্বপদের শেষের বিভক্তি লোপ পেয়েছে, এবং পরপদের অর্থের প্রাধান্য রক্ষিত হয়েছে। তাই এটি তৎপুরুষ সমাস।

উচ্চারণবিধি

উপসর্গ

তৎসম বা সংস্কৃত উপসর্গ

বাংলা উপসর্গ

বিদেশি উপসর্গ

কারকের প্রকারভেদ

কাল

কাল

অতীত কাল

বর্তমালকাল

ভবিষ্যত কাল

বাংলাছন্দ

ণত্ব বিধান ও ষত্ব বিধান

ধাতু

ধ্বনি 

ধ্বনি পরিবর্তন

পদ পরিচয়

বিশেষ্য পদ

বিশেষণ পদ

সর্বনাম পদ

ক্রিয়াপদ

অব্যয় পদ

পুরুষ [PERSON]

প্রকৃতি

প্রত্যয়

সংস্কৃত প্রত্যয়

কৃৎপ্রত্যয়

শব্দের অর্থমূলকশ্রেণীবিভাগ

দ্বিরুক্ত শব্দ 

সংস্কৃত তথা তৎসম শব্দের সন্ধি

সমাস অনুশীলন



No comments:

Post a Comment